মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

উপজেলা প্রশাসনের পটভূমি

উপজেলার উৎপত্তি, নামকরণ ও উপজেলা সৃষ্টির সংক্ষিপ্ত বিবরণঃ

 

১৮৬৭ সালের ২৭ মার্চ কোলকাতা গেজেটে পটুয়াখালী মহকুমা সৃষ্টির ঘোষণা প্রকাশিত হয়। এ মহকুমার অধীনে ৪টি থানার মধ্যে পটুয়াখালী সদর থানা অন্তর্ভূক্ত ছিল। এ সদর থানার একটি গুরুত্বপূর্ন ইউনিয়ন ছিল লেবুখালী। যার পরিষদ কার্যালয় ছিল আজকের দুমকী গ্রামের অন্র্তগত পিরতলা বাজারে। জনশ্রুতি আছে পিরতলা বাজারের পূর্ব পাশে খালের পাড়ে বিশাল আকার পীর গাছ ছিল। যা এক সময় মাটির নিচে দেবে যায়, এ সূত্রেই এ বাজারের নাম হয় পিরতলা বাজার।

লেবুখালী ইউনিয়নের অন্র্তগত দুমকী গ্রামের নামকরণ নিয়ে যে জনশ্রুতি আছে তাতে দেখা যায় একটি দ্বিমূখী খালের নাম থেকে এ গ্রামের নামের উৎপত্তি। পরবর্তীতে যখন ১৯৮৩ সালে এ উপজেলার কৃতি সন্তান সাবেক মন্ত্রী ও মন্ত্রী পরিষদ সচিব মরহুম এম. কেরামত আলীর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় দুমকী নামে একটি প্রশাসনিক থানা বাস্তবায়ন করা হয় তখন “দুমকী” নামটি সর্বজন সম্মতিতে গৃহীত হয়। জানা যায় স্বাধীনতা লাভের পর বঙ্গবন্ধু সরকার দেশকে প্রশাসনিক ভাবে সাজানোর প্রক্রিয়া হিসাবে দেশে নতুন নতুন থানার যে প্রস্তাব আসে তম্নধ্যে পটুযাখালী জেলার সদর থানা ভেঙ্গে দুমকী থানাও ছিল একটি। কালের পরিক্রমায় ২৮ জুলাই ১৯৮৩ সালে সাবেক মন্ত্রী পরিষদ সচিব মরহুম এম. কেরামত আলী সাহেবের প্রচেষ্টায় ২২টি মৌজা তথা ৪টি ইউনিয়ন নিয়ে দুমকী প্রশাসনিক থানা গঠিত হয়। এর মধ্যে আংগারিয়া ইউনিয়নটি বাকেরগঞ্জ থানার অধীনে ছিল। দুমকী উপজেলাবাসীর অনেক ত্যাগ ও প্রচেষ্টার ফলশ্রুতিতে ১৯৯৮ সালের ২৫ নভেম্বর দুমকী উপজেলা হিসাবে জাতীয় সংসদে তালিকাভূক্ত হয়ে উপজেলা বিল পাস হয় এবং ২ ফেব্রুয়ারী ২০০০ সালে প্রথম উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসাবে জনাব মোঃ আবদুল মান্নান এ উপজেলায় যোগদান করেন। নবগঠিত এ উপজেলার আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয় ৮ জুলাই ২০০০ সালে তৎকালীন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক প্রশাসনিক ভবনের শুভ উদ্বোধনের মাধ্যমে। (তথ্যসূত্র ঃ প্রতিষ্ঠার একযুগ, দুমকী উপজেলা পরিষদ বার্তা-২০১২, সংক্ষেপিত)

 

   # থানা হিসেবে প্রতিষ্ঠার তারিখ        ঃ ২৮ জুলাই, ১৯৮৩খ্রিস্টাব্দ।

   # উপজেলা হিসেবে প্রতিষ্ঠার তারিখ     ঃ ০২ ফেব্রুয়ারী, ২০০০খ্রিস্টাব্দ। (আনুষ্ঠানিক প্রতিষ্ঠা ঃ ৮ জুলাই ২০০০ খ্রি.)